[bangla_day], [english_date], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]

সাংসারিক দায়দায়িত্ব থেকে ৩ দিনের ছুটি চাহিয়া স্বামীর নিকট স্ত্রী’র দরখাস্ত

প্রকাশঃ November 25, 2017 | সম্পাদনাঃ 25th November 2017

বরাবর
প্রিয় স্বামী

বিষয়: ৩ দিনের ছুটির আবেদন।

প্রিয়,

আমি সাংসারিক জীবনে গৃহিণী/হাউজওয়াইফ পদবী নিয়ে বিনাবেতন, বোনাসে ৭ x ৩০ ছুটিবিহীন কাজ করি।

আজ থেকে আমাদের বাচ্চাদের স্কুলে অনেকদিনের জন্য ছুটি শুরু হয়েছে।

তুমিও ৩ দিনের টানা ছুটি পাবে এবং অন্যসব ছুটির দিনগুলোর মতো তুমি এই ছুটিতেও কর্মদিবসের ক্লান্তি কমাতে রেস্ট নিবে। কিংবা তোমার ইচ্ছেনুযায়ী আমাদের বাইরে কোথাও বেড়াতে নিয়ে যাবে কিংবা নিজের মতো করে একা বন্ধু আড্ডায় মেতে উঠবে….

এবং যথারীতি এই দিনগুলোতে আমি তোমাদের জন্য হলিডে স্পেশাল মজাদার রান্নাবান্না এবং অতিথি আপ্যায়ন দিয়ে ছুটির দিনগুলো শেষ করবো…..

গতকাল রাতে খুব ক্লান্ত লাগছিল। শরীরে অসুস্থতাবোধ করছিলাম কিন্ত তোমাকে বুঝতে দেইনি। খারাপ লাগতে লাগতে কখন যে ঘুমিয়ে পড়েছি টের পাইনি….. প্রায়শই শরীর খারাপ লাগে…! কিন্ত আমি বিছানায় শুয়ে থাকলে তো সংসারের অনেককিছুই অচল হয়ে যাবে….!!

এতো বছর পর কেন জানিনা, ইদানীং আমার ও কিছুদিন ছুটি কাটাতে ইচ্ছে করছে। যা কিনা ইতিপূর্বে কখনওই এমন করে ছুটি চাইনি এবং অনুভব ও করিনি ।

এমন কিছু দিন চাই, যে দিনগুলোতে ফ্রিজের দরজা খুলে তাকিয়ে থেকে ভাবতে হবেনা পুটি মাছ নাকি কইমাছ রান্না করবো তোমার জন্য, বাচ্চারা কী চিকেন খাবে নাকি বিরিয়ানি খাবে…? ঘরে বাজার আছে তো…? এ মাসে কেন এতো তেল খরচ হলো…? আয় বুঝে ব্যয় করছি তো..? রান্নাগুলো সুস্বাদু হচ্ছে তো..? বিদ্যুৎ বিল এতো আসলো কী করে…? পত্রিকাওয়ালা এই মাসে কয়দিন পত্রিকা দেয়নি হিসেব রেখেছি তো…? আজ বুয়া আসেনি, বুয়ার জন্য জমিয়ে রাখা ঘরের কাজগুলো করতে কোমরে কাপড় বেধে নিতে হবে এখনি …!

বাচ্চাদের হোমওয়ার্ক ….. স্কুলের টিফিন …. ক্লাসে বন্ধুদের সাথে মারামারি বা শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ…! পরীক্ষার ফলাফল….ইত্যাদি নিয়ে মাত্র ০৩ টি দিন ভাবতে চাইনা……!!

প্রতিদিন সংসারের প্রয়োজনে সেই কাকডাকা ভোরে ঘুম ভাঙ্গে কিন্তু কখনওই সুর্যোদয় দেখার সময় হয়না… শেষ কবে শীতের সকালের কুয়াশায় পা ভিজিয়েছি মনে পড়েনা…!

প্রতিদিন সন্ধ্যাবেলায় বাচ্চাদের নিয়ে এতো ব্যস্ত থাকি যে, সন্ধার আকাশের সুর্যাস্ত দেখা হয়না… সুর্য ডুবে যাবার পরে পশ্চিমা আকাশের লালিমা ও দেখা হয়না… তুমি তো জানোই না সুর্যাস্তের সময়টা আমার কতো প্রিয় ছিলো.. সন্ধার আকাশের লালিমা না দেখে কখনো ঘরে ফিরেছি কিনা মনে পড়েনা…….

মুষলধারায় বৃষ্টি দেখলেই ইচ্ছে করে নিজেকে বৃষ্টির বিশুদ্ধ পানিতে ভিজিয়ে নিয়ে ক্লান্তিগুলো ধুয়েমুছে দেই। কিন্ত আমাকে যে অসুস্থ হওয়া চলবেনা….!!

তোমাদের প্রিয় খাবারের কথা ভাবতে ভাবতে ভুলেই গেছি : আমার প্রিয় খাবারগুলো কী কী ছিলো…. কে আমাকে প্রিয় খাবার রেধে খাওয়াবে…?

নিজের শখ, ইচ্ছেগুলো একএক করে চাপা পড়ে যাচ্ছে বাচ্চাদের স্কুল ক্লাস পরীক্ষা, ঘর সংসার, টাকা পয়সার কঠিন হিসাবনিকাশের যাতাকলে…..

আজ আমার পরিচয় শুধু অমুকের স্ত্রী কিংবা অমুকের মা…..!! নিজের নাম, শিক্ষা বিলীন হয়ে গিয়ে পদবী পেয়েছি হাউজওয়াফ… যে পদবী শুনলে চারপাশের সবাই নাক উচু হয়ে যায়……

ছোটবেলায় ইংলিশ ট্রান্সলেশন পড়েছিলাম : আমার যদি পাখীর মতো ডানা থাকতো : HAD I WINGS OF A BIRD… ইদানীং আমার ও পাখী হতে ইচ্ছে করে…. মনে হয় ইস আমার ও যদি পাখীর মতো ডানা থাকতো তবে উড়েউড়ে ঘুরেঘুরে বেড়াতাম রাঙ্গা পাখীর মতোন……!!

অতএব, প্রিয় স্বামী তোমার নিকট আমার আবেদন এই যে, তুমি আমার হৃদয়ের আকুলতা ব্যাকুলতাকে বিশালতার সাথে বিবেচনা করে নিজের উদারতা উচ্ছলতা প্রকাশিত অন্তরে আমার ৩ দিনের জন্য ছুটি মঞ্জুর করে মুক্ত বিহঙ্গের মতো উড়তে দিয়ে বাচ্চাদেরসহ নিজেকে ও আমার সঙ্গী করবে………..

বিনীত নিবেদক
তোমার স্ত্রী
গৃহিণী

এই বিভাগের আরো সংবাদ