[bangla_day], [english_date], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]

রাবি শিক্ষক রেজাউল হত্যাকাণ্ড উদ্বেগজনক

প্রকাশঃ April 28, 2016 | সম্পাদনাঃ 28th April 2016

1440343030

ফাইল ছবি

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রেজাউল করিম সিদ্দিকীর হত্যাকাণ্ডটি উদ্বেগজনক বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। তিনি বলেন, ‘হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আমরা উদ্বিগ্ন। যথাসম্ভব তদন্ত করে দোষীদের বিচারের সম্মুখীন করার জন্য পুলিশবাহিনীকে অনুরোধ জানানো হয়েছে। এসব হত্যাকাণ্ডের বিরুদ্ধে প্রবল জনমতও গড়ে তোলা দরকার।’

আজ বৃহস্পতিবার সিলেটে জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য শেষে নুরুল ইসলাম নাহিদ সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা দিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তো আর নিজস্ব কোনো বাহিনী নেই। তবে এ ধরনের ঘটনা যেন পুনরায় না ঘটে, এ জন্য পুলিশকে নির্দেশনা দেওয়া রয়েছে।’

 

গত শনিবার সকাল পৌনে ৮টার দিকে রাজশাহীর শালাবাগান এলাকায় নিজ বাসা থেকে একটু দূরে প্রফেসর রেজাউলের ওপর এ হামলার ঘটনা ঘটে। হামলাকারীরা মোটরসাইকেলে করে এসে হামলায় অংশ নেয়। তারা প্রফেসর রেজাউলকে পেছন থেকে কুপিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করে ফেলে রেখে চলে যায়।

অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, প্রত্যেক মানুষ যাতে আইনের মাধ্যমে সুরক্ষিত থাকতে পারে, আইনের শাসন যেন সমাজে প্রতিষ্ঠিত হয়—এ জন্য বর্তমান সরকার নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে। আমাদের অনেক ক্ষেত্রে পশ্চাৎপদতা রয়েছে, তবে বিচার ব্যবস্থা ইতোমধ্যেই আন্তর্জাতিক মানে পৌঁছেছে। একটি দেশের বিচারব্যবস্থা যত উন্নত হয়, সে দেশ জাতি হিসেবে ততই সভ্য হয়।

 

জাতীয় আইনগত সহায়তা প্রদান সংস্থা সিলেট জেলা কমিটির উদ্যোগে জেলা ও দায়রা জজ আদালত প্রাঙ্গণে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সকাল সাড়ে ১০টায় শুরু হওয়া আলোচনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জ্যেষ্ঠ জেলা ও দায়রা জজ মনির আহমেদ পাটোয়ারি। এর আগে জেলা জজ আদালত প্রাঙ্গণ হতে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়ে তা নগরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

‘গরিব দুঃখীর বিচার পাওয়ার অধিকার বর্তমান সরকারের অঙ্গীকার’ শীর্ষক আলোচনা সভায় আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে মুখ্য মহানগর হাকিম সাইফুজ্জামান হীরু, জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ ও দমন আদালতের বিচারক মফিজুর রহমান ভূইঞা, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতের বিচারক বিমল শিকদার, সিলেটের সরকারি কৌঁসুলি মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, সরকারি কৌঁসুলি খাদিমুল মিল্লাত জালাল, সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ কে এম সামিউল আলম, সাধারণ সম্পাদক শাহ আশরাফুল ইসলাম প্রমুখ বক্তব্য দেন।

এই বিভাগের আরো সংবাদ