[bangla_day], [english_date], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]

রহস্যে ঘেরা ধূসর মানব

প্রকাশঃ April 25, 2016 | সম্পাদনাঃ 25th April 2016

দদদদদদদদপলেজ দ্বীপের পূর্ব উপকূলে একজন রহস্যময় মানব থাকেন। তিনি সেখানে বসবাসরতদের কাছে কিংবদন্তিতুল্য। তিনি সবাইকে ঝড়ের কবলে পড়ার আগেই সতর্ক করে দেন। ধূসর মানব হিসেবেই তিনি সবার কাছে পরিচিত।

গত দুশো বছরে এ দ্বীপে পাঁচটি হারিকেন আঘাত হানে। আর ঠিক সে সময়গুলোতেই ধূসর মানব ঝড়ের আগেই সেখানে হাজির হন। জীম নামে এক ব্যক্তি জানান, সৈকতে অনেক মানুষ হাঁটাহাঁটি করেন। কিন্ত বিকেলে তিনি বিশেষ কাউকে হাঁটতে দেখেন। ঐ ব্যক্তিটি প্রতিদিন বিকেলে নির্দিষ্ট সময়ে হাঁটেন সেখানে। জীম যখন তাকে কিছু বলতে যাবেন তখনই লোকটি অদৃশ্য হয়ে যায়।

ধূসর রংয়ের কাপড় পরে হাজির হন বলে সবাই তাকে ধূসর মানব বলে ডাকেন। প্রতিদিন ঐ দ্বীপে মাছ ধরেন এমন একজন জেলে জানান,তিনি যখন দ্বীপের গভীরে মাছ ধরতে যান তখন তীরে দাঁড়িয়ে থাকা একজন লোক তার দিকে এগিয়ে আসেন। জেলের নৌকার লোকটির দিকে যতই এগিয়ে আসতে থাকে ,ধূসর লোকটি তখন পানিতে ঢেউ ভাঙার খেলাটি থামিয়ে দিয়ে জেলেকে কাছে আসতে বলেন। কাছে আসার পর ধূসর লোকটিকে জেলের কাছে কোনো পুরনো জলদস্যুর মতো মনে হয়।তখন তিনি অনেকটা ভয় পেয়ে যান।

pawleys island

এর কয়েক ঘন্টা পরে তীরে শক্তিশালী ঝড় আঘাত হানলে জেলেরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। তারা বিশ্বাস করেন ধূসর মানব তখন সেখানে হাজির হয়ে তাদের রক্ষা করবেন।

তবে এখনও কেউ জানে কে এই ধূসর মানব? যদিও সেখানে অনেক গল্প প্রচলিত আছে।একজনের মতে, এক প্রেমিক তার বাগদত্তার সাথে দেখা করতে গেলে সেখানে চোরাবালিতে পড়ে তার মৃত্যু হয়। ঐ দূর্ঘটনার পর মৃত ব্যক্তিটি সৈকতে গিয়ে তার প্রেমিকাকে সেখান থেকে দ্রুত চলে যেতে বলেন। তখন প্রেমিকাটি তার পরিবারের অন্য সদস্যদের সাথে নিয়ে শহর ছেড়ে পালান। মারাত্মক হারিকেন তখনই সেখানে আঘাত হানে ,কিন্ত পরিবারটি বেঁচে যায়। ধূসর মানব যে বাড়িতে থাকতেন সেটি এখন ‘প্যালিকন ইন’ নামে পরিচিত। কিন্ত কেউ তার সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে কিছুই বলতে পারছে না।

পলেজ দ্বীপে সর্বশেষ আঘাত হানে হারিকেন হুগো, কিন্ত এটিই শেষ নয়। ধূসর মানব কি আবার সেখানে ফিরে আসবেন?উত্তরের জন্য অপেক্ষা করতে হবে সঠিক সময় পর্যন্ত।

এই বিভাগের আরো সংবাদ