[bangla_day], [english_date], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]

ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসকদের তনুর বাবার উকিল নোটিশ

প্রকাশঃ May 25, 2016 | সম্পাদনাঃ 25th May 2016
Feature Imageকুমিল্লা: কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজছাত্রী ও নাট্যকর্মী সোহাগী জাহান তনু হত্যা নিয়ে তার বাবা ইয়ার হোসেন ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসকদের উকিল নোটিশ পাঠিয়েছেন।

নোটিশটি কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের অধ্যক্ষ মোহসিন-উজ-জামান চৌধুরী, ফরেনসিক বিভাগীয় প্রধান ডা. কামদা প্রসাদ সাহা এবং তনুর প্রথম ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক শারমিন সুলতানাকে পাঠানো হয়। মঙ্গলবার এই নোটিশ কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পৌঁছায় বলে রাতে জানান তনুর বাবা ইয়ার হোসেন।

তনু বাবা ইয়ার হোসেনের পক্ষে বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতির নির্বাহী পরিচালক অ্যাডভোকেট সালমা আলীর পাঠানো ওই নোটিশে তনুর মৃতদেহের প্রথম ময়নাতদন্তে ধর্ষণের আলামত না পাওয়া ও দ্বিতীয় ময়নাতদন্ত প্রদানে কালক্ষেপণ করায় কেন আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে না, তা জানাতে চাওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ২০ মার্চ তনুর মরদেহ কুমিল্লা সেনানিবাসের অভ্যন্তরের একটি জঙ্গলের ভেতর থেকে উদ্ধার করা হয়। পর দিন কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের প্রভাষক ডা. শারমিন সুলতানা তনুর প্রথম ময়নাতদন্ত করেন। ডিএনএ আলামত সংগ্রহের জন্য মামলার দ্বিতীয় তদন্তকারী সংস্থা ডিবির আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গত ৩০ মার্চ কবর থেকে তনুর মরদেহ উত্তোলন করা হয়। ৩ সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ড দ্বিতীয় দফায় ময়নাতদন্ত ও ডিএনএ আলামত সংগ্রহ করে। ৪ এপ্রিল তনুর প্রথম ময়নতদন্ত রিপোর্ট দেওয়া হয়। এতে তনুকে হত্যা কিংবা ধর্ষণের আলামত ছিল না বলে জানানো হয়। অন্যদিকে গত ৫৫ দিনেও নানা অজুহাতে দেওয়া হয়নি দ্বিতীয় ময়নাতদন্ত রিপোর্ট। এরই মধ্যে গত ১৬ মে রাতে ডিএনএ রিপোর্টে তনুকে ধর্ষণের আলামত পাওয়ার খবর সিআইডি থেকে জানানো হয়।

এই বিভাগের আরো সংবাদ