[bangla_day], [english_date], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]

বাজারে আসতে শুরু করেছে নানা দেশি ফল

প্রকাশঃ April 17, 2016 | সম্পাদনাঃ 17th April 2016

 

fruit_200_200

মধুমাস জৈষ্ঠ আসতে আরও কিছুদিন বাকি। তবে এরইমধ্যে দেশি নানা রকম ফল, আসতে শুরু করেছে বাজারে। দাম নিয়ে অসন্তোষ থাকলেও ক্রেতারা বলছেন, ক্যামিকেল মুক্ত ফল হলে, বাড়তি দাম গুণতেও রাজি তারা।

যদিও বিক্রেতারা ফলের শতভাগ গ্যারান্টি দিয়ে বলছেন, সব ফলই এখন ফরমালিনমুক্ত।

চৈত্র পেরিয়ে বৈশাখ এলেও এতোটুকু পাল্টায়নি সূর্যের ঠাঁটবাঁট। আগুন রোদে পুড়ছে শহর, শহরতলীর মানুষ।

এমন সময় মন চায় একটু বিশ্রাম। কিন্তু, শহরের ইট-পাথরের ভিড়ে ব্যস্ততার ফাঁক গলে সেই ছায়াটুকু মেলাও দায়।

সূর্যের উত্তাপ, ভ্যাপসা গরম আর তৃষ্ণার্ত ঠোঁটের এমন দূর্বিষহ জনজীবনে কিছুটা স্বস্তি এনে দেয় গ্রীষ্মকালীন রসালো সব ফল।

মধুমাস জৈষ্ঠ আসতে বাকি আরও মাসখানেক। তাই, আম, লিচু কাঁঠালসহ গ্রীষ্মকালীন সব ফলে এখনও, সেভাবে সেজে ওঠেনি দোকানগুলো।

তবে, ডাব, তরমুজ বেল, আঙুর আর সফেদাসহ মিলছে হরেক-রকমের ফল। যদিও যথারীতি ফরমালিনের আতঙ্কও রয়েছে কারো কারো মনে।

আর বিক্রেতাদের দাবি, সব ফলই এখন ক্যামিকেল মুক্ত। শতভাগ গ্যারান্টিও দিচ্ছেন কেউ কেউ।

শুধু মুখরোচক খাবারই নয়, ফলের রয়েছে বহুবিধ পুষ্টিগুণও। তবে, ফরমালিনে হারাচ্ছে সেই গুণ, বাড়ছে বিষাক্ততা।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, দেশি ফলের প্রতি ক্রেতাদের দুর্বলতার সুযোগে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী এখনও কেমিক্যাল মেশান। তাই, দ্রুতই কার্যকর পদক্ষেপ নেয়ার দাবি তাদের।

এই বিভাগের আরো সংবাদ