[bangla_day], [english_date], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]

প্রধানমন্ত্রীপুত্র সজিব ওয়াজেদ জয় তার বাবার গুণাবলী সেটা ওনি পাননি।বলেছেন,সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী

প্রকাশঃ May 3, 2016 | সম্পাদনাঃ 3rd May 2016

rizvi-joy-shadhinbangla24

ঢাকা : বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বক্তব্যের জবাবে প্রধানমন্ত্রীর ছেলে এবং তথ্য ও প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজিব ওয়াজেদ জয়ের ফেসবুক স্ট্যাটাস সংক্রান্ত এক প্রতিক্রিয়ায় বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীপুত্র সজিব ওয়াজেদ জয় তার বাবার (ড. ওয়াজেদ আলী মিয়া) যে গুণাবলী সেটা ওনি পাননি। দেশের একজন প্রধান রাজনীতিবিদের বিরুদ্ধে কীভাবে সম্বোধন করে কথা বলতে হয় তা ওনি শেখেননি।

রিজভী বলেন, তা যদি শিখতেন তাহলে এ ধরণের সম্বোধন করে কথা বলতে পারতেন না।

মঙ্গলবার সকালে এক বৈঠক অনুষ্ঠানে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব এসব কথা বলেন।

জয়ের মন্তব্যের কঠোর সমালোচনা করে রিজভী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ছেলে হিসেবে দেশের একজন সম্মানিত প্রধান নেতৃত্বকে যেভাবে সম্বোধন করে কথা বলছেন এটা সর্ম্পুণভাবে রুচিবর্হিভুত বলে আমি মনে করি এবং এখানে তার বাপের যে চিন্তাধারা ও শিক্ষা এটা তার মধ্যে যায়নি।
বিএনপির এই নেতা বলেন, ভদ্র পরিবারের একটা সাংস্কৃতির যে উচ্চতা থাকে সেটা জয়ের মধ্যে নেই। তার আচার আচারণের মধ্যে ভয়ঙ্কর ঘাটতি দেখতে পাই। আর এই সাংস্কৃতিক ঘাটতি আছে বলেই সে এধরণের মন্তব্য করতে পারে।
রিজভী বলেন, ড. ওয়াজেদ সাহেব একজন অত্যন্ত শিক্ষিত মানুষ ছিলেন, ওনি যে কলেজে পড়তেন সেই কলেজে তার অনেক পরে আমিও পড়েছি। রাজশাহী সরকারি কলেজে আমরা কিছু শিক্ষক পেয়েছিলাম যারা ওনারও শিক্ষক ছিলেন। সেই শিক্ষকদের কাছ থেকে শুনেছিলাম ড. ওয়াজেদ সাহেব একজন অত্যন্ত ব্রিলিয়ান্ট ছাত্র এবং খুব ভদ্র একজন মানুষ। আমিও সেভাবে তাকে বিবেচনা করি।
রিজভী বলেন, আজকের যিনি প্রধানমন্ত্রী তিনি আমাদের দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান সর্ম্পকে এমন কোনো কথা নেই যা ওনি বলেননি। মালেশিয়ায় তিনি (তারেক রহমান) কারখানা করছেন টাকা জমা রেখেছেন সেটা বিএনপি যখন ক্ষমতায় ছিলো তখনো বলেছে। কিন্তু ওনি আজ সাত আট বছর ক্ষমতায় থেকেও একবারও ওনি প্রমাণ করতে পারেননি। কিন্তু ওনি যখন একথাগুলো বলেছেন তার উত্তর একটা মার্জিত ভাষায় দলের পক্ষ থেকে দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, আমরাও তো কথা বলি, আমরা ভোটারবিহীন সরকার, অবৈধ প্রধানমন্ত্রী আমরা বলি।

 

জয়ের প্রতি এই চ্যালেঞ্জ দিয়ে রিজভী বলেন, তিনি এই কথাগুলোর জবাব অন্যভাবে দিতে পারতেন। সেটি না দিয়ে এমনভাবে রিয়েক্ট করছেন বিষয়টির একটা সত্যতা ও বাস্তবতা আছে। এই কারণে সে এভাবে প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছেন। কিন্তু এই রিয়েকশনটা শোভনীয় নয়। তোমার ব্যাপারে অভিযোগ উঠেছে তুমিই প্রমাণ করো যে, আমার কোথাও টাকা নেই।
তিনি বলেন, টাকা পাচারের বিষয়ে দেশ ও বিশ্বব্যাপি কথা বের হয়েছে এটা যদি মিথ্যা হয় তাহলে ঠিক আছে প্রমাণ করে দেখাও। যদি কারোর এ বিষয়ে সন্দেহ থাকে যে কথাটা রটেছে তা কতটুকু সত্য সেটার অনুসন্ধান যে কেউ করতে পারে। আর সাংবাদিকরাতো করতেই পারেন। এ জন্য সাংবাদিককে ধরে পিটিয়ে, হেনেস্তা করে, অপমান করে তাকে অসম্মানিত করা এটাতো পৃথিবীর কোনো জায়গায় আমরা দেখিনি। রাষ্ট্র ক্ষমতার জোরে এই কাজটা করছেন ।

 

 

সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া তিনি তিনবারের প্রধানমন্ত্রী তিনি নিশ্চয়ই কোনো তথ্যের ওপরে এ কথা বলেছেন।
তিনি বলেন, মামলা হয়েছে যে বিষয়ে সেই বিষয়ে তারা কোনো কথা বলছে না। ওই বিষয়টি তারা নিয়ে আসছেন না। তারা জোর করে বলছেন আমেরিকাতে জয়কে অপহরণ ও হত্যার চেষ্টা করা হয়েছিলো এবং সেই অভিযোগে শফিক রেহমান সাহেবকে ধরা হয়েছে। এবং মাহমুদুর রহমান সাহেব নাকি জেলখানা থেকে এই ষড়যন্ত্র করেছেন। এগুলো হাস্যকর কথা ছাড়া আর কিছুই না। এগুলো মানুষ বিশ্বাস করে না।

এই বিভাগের আরো সংবাদ