[bangla_day], [english_date], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]

পানির নীচে এখনও আছে এই শহরগুলো!

প্রকাশঃ April 2, 2016 | সম্পাদনাঃ 2nd April 2016

নিউজ ডেস্ক : এ যেন ঠিক মাছেদের শহর। পানির নীচে আস্ত কতগুলো সাজানো-গোছানো শহর। ছোট ছোট ঘর, মন্দির, পিরামিড সবই দেখতে পাওয়া যাবে। তবে সেগুলো ধ্বংসাবশেষ।

city
আসলে এক সময়ে এখানেই ছুটোছুটি করত বাচ্চারা। এখন সেখানে রাজত্ব করে বেড়ায় মাছেরা। প্রাচীন সভ্যতায় তিল তিল করে গড়ে উঠেছিল শহরগুলো। প্রকৃতির খেলায় এখন সে সবই পানির তলায় তলিয়ে গেছে।

city1
পোর্ট রয়্যাল: জলদস্যুদের শহর হিসেবেই বেশি পরিচিত ছিল জামাইকার এই শহরটি। ১৬৯২ সালে এক ভয়ানক ভূমিকম্পে পুরো শহরটিই ক্যারিবিয়ানের তলায় তলিয়ে যায়।
city2
দ্বারকা: ২০০০ সালে গুজরাতের এই শহরটি আরব সাগরের নীচে আবিষ্কার করা হয়। শহরটি পানির নীচে কেন ডুবে গিয়েছিল তার কোনও স্পষ্ট কারণ এখনও জানা যায়নি।
city3
ইওনাগানি মনুমেন্ট: ১৯৮৬ সালে জাপানে সমুদ্রের তলদেশে বিশালাকার এলাকা জুড়ে পিরামিড আকৃতির পাহাড় উদ্ধার হয়।

মাসাকি কিমুরা নামে এক প্রফেসর জানান, ২০০০ থেকে ৩০০০ সাল আগে এখানে একটি শহর ছিল।
city4
লায়ন সিটি: মাত্র ৬০ বছর হল চীনের এই শহরটি ডুবে গেছে। ১৯৫৯ সালে চীনা সরকার হাইড্রোইলেক্ট্রিক বাঁধ বানান জিনান নদীর উপরে। বিজ্ঞানীদের মতে, এর ফলেই বন্যার পানিতে তলিয়ে যায় শহরটি। এখনও পানির তলায় আস্ত শহরটির অস্তিত্ব রয়েছে।
city5
হেরাক্লেওন বা থনিস: সবচেয়ে পুরনো শহর। প্রাচীন মিশরের প্রধান বন্দর ছিল এই শহরটি। এক সময়ে নীলনদের তীরে গড়ে উঠেছিল। সমুদ্রের জলতল বাড়তে বাড়তে এক সময়ে পানির তলায় চলে যায় শহরটি। ২০০০ সালে পানির তলায় শহরের ধ্বংসাবশেষ উদ্ধার হয়।
city6
টিটিকাকা হ্রদের তলদেশে মন্দির: দক্ষিণ আমেরিকার পেরুতে অবস্থিত এই হ্রদের তলায় ২০০ মিটার উচ্চতায় একটি মন্দির উদ্ধার হয়েছে।

প্রতœতত্ত্ববিদেরা একটি ডুবে যাওয়া রাস্তার সন্ধান করতে গিয়েই মন্দিরের কাছে পৌঁছে যান।
city7
ভিলা এপিকুয়েন: ১৯৭০ সালেও ৫০০০ বসতি ছিল আর্জেন্তিনার এই শহরে। আচমকাই শহর লাগোয়া হ্রদের জলতল অনেকটা বাড়তে শুরু করে। ধীরে ধীরে পানির তলায় হারিয়ে যায় শহরটি।
city8
পাভলোপেট্রি: ৫০০০ বছরেরও বেশি আগে পানির তলায় ডুবে গিয়েছিল গ্রীসের এই শহরটি। যে কারণে শহরটির সঠিক নাম কেউ জানে না। পানির নীচে শহরের ধ্বংসাবশেষ আবিষ্কার হয় ১৯৬৭ সালে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ