[bangla_day], [english_date], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]

পছন্দের ছেলেকে বিয়ে করায় মেয়েকে পুড়িয়ে হত্যা

প্রকাশঃ June 8, 2016 | সম্পাদনাঃ 9th June 2016

ঢাকা: পরিবারের অমতে পছন্দের ছেলেকে বিয়ে করার জন্য ১৮ বছর বয়সী কন্যাকে পুড়িয়ে মারলো মা!বুধবার পাকিস্তানের লাহোরে এই ঘটনা ঘটে। খবর ডন নিউজের।

স্টেশন হাউজ কর্মকর্তা শেখ হাম্মাদ আখতার জানান, নিহত ওই তরুণী লাহোরের মাস্ট ইকবাল রোডের বাসিন্দা।পালিয়ে পছন্দের ছেলেকে বিয়ে করার বিষয়টি পরিবার মেনে নিতে পারে নি।

ডনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নিহত হওয়ার দুই দিন আগে তরুণীটির পরিবার তাকে বাড়ি ফিরে আসতে বলে। অপরাধ ক্ষমা করে দিবে ভেবে পরিবারের কাছে ফিরেও আসে মেয়েটি। শেষ পর্যন্ত বাড়িতে ফিরে আসার পর তার মা মেয়ের শরীরে পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

পুলিশের কাছে ওই তরুণীর মা আগুনে পুড়িয়ে হত্যার কথা স্বীকার করেছে। পুলিশ নিহতের লাশ মর্গে পাঠিয়েছে এবং হত্যার দায়ে অভিযুক্ত মাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

পুলিশ সুপার ইবাদাত নিসার জানিয়েছেন, মৃত তরুণীর দুবাই ফেরৎ বড় ভাই ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে। পুলিশ তাকে খুঁজছে।

প্রসঙ্গত, এই মাসের শুরুর দিকেও অনুরূপ একটি ঘটনা ঘটেছে ইসলামাবাদের উপকণ্ঠে।পছন্দের ব্যক্তিকে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানানোয় ১৯ বছর বয়সী এক স্কুল শিক্ষিকাকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

গত মাসে বান্ধবীকে পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করতে সহযোগিতার কারণে গ্রাম্য সালিশের বিচারকরা ১৭ বছরের এক কিশোরীকে পুড়িয়ে মারার নির্দেশ দেয়। পরে তাকে অচেতন করে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়। ২৯ এপ্রিল পাকিস্তানের উত্তরাঞ্চলে এই ঘটনা ঘটে।

ডনের প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রতি বৎসর পাকিস্তানে অন্তত এক হাজার নারীকে কথিত ‘অনার কিলিং’-এর নামে হত্যা করা হয়। রক্ষণশীল নিয়ম ভঙ্গ, ভালোবাসা এবং বিয়ে সংক্রান্ত অভিযোগে এই হত্যাকাণ্ডগুলো ঘটে থাকে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ