[bangla_day], [english_date], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]

নিজামীর মরদেহ দাফন সম্পন্ন।

প্রকাশঃ May 11, 2016 | সম্পাদনাঃ 11th May 2016

fff8c0e68b4eb586c5fd3adb1819fee5-57328c5d82780-735x400

একাত্তরে বুদ্ধিজীবী হত্যাকাণ্ডের হোতা নিজামীকে বুধবার প্রথম প্রহরে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়।

জামায়াত আমির প্রাণভিক্ষা চেয়ে রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন করেননি বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। দণ্ড কার্যকরের আগে তার স্বজনরা কারাগারে গিয়ে শেষ দেখা করে আসেন।

জামায়াতে ইসলামীর আমির নিজামী সপরিবারে ঢাকার বনানীতে থাকতেন। তবে তার দাফন জন্মস্থান পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার মনমথপুরে করার প্রস্তুতি চলে সন্ধ্যার পর থেকে।

মধ্যরাতে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের পর রাত দেড়টায় দুটি অ্যাম্বুলেন্স কারাফটক দিয়ে বেরিয়ে আসে, এর একটিতে ছিল জামায়াত আমিরের লাশ। সামনে-পেছনে ছিল র‌্যাব ও পুলিশের ছয়টি এবং কারা কর্তৃপক্ষের একটি গাড়ি।

কারাগার থেকে বেরিয়ে ফার্মগেইট, উত্তরা হয়ে বাইপাইল দিয়ে টাঙ্গাইল পেরিয়ে বঙ্গবন্ধু সেতুর উপর দিয়ে পাবনার সাঁথিয়ায় যায় লাশবাহী এই গাড়ির বহর।

সাঁথিয়ার ধোপাদহ ইউনিয়নের মনমথপুরে গ্রামে সকাল সোয়া ৬টার দিকে পৌঁছায় লাশ। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছ থেকে লাশ গ্রহণ করেন নিজামীর ছেলে নাজিব মোমেন।

মনমথপুর মাদরাসা মাঠে জানাজা শেষে সকাল সাড়ে ৭টায় নিজামীকে গ্রামের কবরস্থানে দাফন করা হয়।

এই বিভাগের আরো সংবাদ