[bangla_day], [english_date], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]

মানবতাবিরোধী অপরাধে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত নিজামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হয়নি।

প্রকাশঃ May 3, 2016 | সম্পাদনাঃ 3rd May 2016

Khandakar-mahbub-shadhinban

ঢাকা : মানবতাবিরোধী অপরাধে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াতের আমির মতিউর রহমান নিজামীর রিভিউ শুনানিতে ‘অভিযোগ প্রমাণিত হয়নি’ বলে দাবি করেছেন তার পক্ষের আইনজীবী খন্দকার মাহবুব।

শুনানি শেষে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, সাক্ষীরা যে সাক্ষ্য দিয়েছেন, তাতে অভিযোগ প্রমাণিত হয়নি। রিভিউয়ের শুনানিতে এই বিষয়টিই আদালতের সামনে আমরা তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। তাছাড়া একজন নারী সাক্ষীর কথা বলা হচ্ছে, তার স্বামীকে ধরে নিয়ে হত্যা করা হয়েছে। আমরা বলতে চেয়েছি, ওই নারী কোথাও নিজামীর নাম বলেননি।

খন্দকার মাহবুব আরও বলেন, আমরা আদালতকে বলেছি, ১৯৭৪ সালে ত্রিপক্ষীয় চুক্তির মাধ্যমে ১৯৫ জন যুদ্ধাপরাধীকে ক্ষমা করে দেওয়া হয়েছে, যারা যুদ্ধাপরাধী হিসেবে প্রমাণিত। প্রধান আসামিদের ক্ষমা করে দিয়ে এদের বিচার কীভাবে চলে। এসব কথাই আমরা আদালতে তুলে ধরেছি।

অপরদিকে, রাষ্ট্রপক্ষে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেছেন, সাক্ষ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে ৩টি অভিযোগে নিজামীর মৃত্যুদণ্ড হয়েছে। এ বিচার চলতে কোনও বাধা নেই।

মঙ্গলবার সকালে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের চার বিচারপতির বেঞ্চে শুনানি হয়। শুনানিতে বাদী ও বিবাদীপক্ষের আইনজীবীরা তাদের বক্তব্য উপস্থান করেন। এরপর এ মামলার রিভিউ রায় ঘোষণার জন্য ৫ মে দিন ধার্য করেন আদালত।

বেঞ্চের অন্য সদস্যরা হলেন- বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা, বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ও বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী।

মানবতাবিরোধী অপরাধে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াতের আমির মতিউর রহমান নিজামীর রিভিউ আবেদনের শুনানি শেষ হওয়ার পর আগামী ৫ মে এ বিষয়ে আদেশ দেওয়ার দিন ধার্য করেছেন আদালত।

উল্লেখ্য, মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে পাবনায় হত্যা, ধর্ষণ ও বুদ্ধিজীবী হত্যার দায়ে ২০১৪ সালের ২৯ অক্টোবর নিজামীর মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছিলেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। এ রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন এ জামায়াত নেতা। নিজামীর বিরুদ্ধে বুদ্ধিজীবী হত্যাকাণ্ড এবং হত্যা-গণহত্যাসহ সুপিরিয়র রেসপন্সিবিলিটির মোট ১৬টি মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ আনা হয়। এর মধ্যে আটটি অভিযোগ প্রমাণিত হয়।

এই বিভাগের আরো সংবাদ