[bangla_day], [english_date], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]

জাপার অষ্টম কাউন্সিল ইতিহাসে স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

প্রকাশঃ May 14, 2016 | সম্পাদনাঃ 14th May 2016

ChaCha

ঢাকা: প্রধান বিরোধী দল জাতীয় পার্টির অষ্টম জাতীয় কাউন্সিল শুরু হয়েছে। শনিবার বেলা ১১টায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশন মিলনায়তনে কাউন্সিলের উদ্বোধন করবেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।

দলটির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার জানান, দলটির ৭৬টি সাংগঠনিক জেলার প্রায় ২০ হাজার কাউন্সিলর ও ২০ হাজার ডেলিগেট এতে অংশ নিচ্ছেন। এছাড়া উপস্থিত থাকছেন ৫০ হাজারেরও বেশি নেতাকর্মী।

উদ্বোধনী অধিবেশনের পর এক ঘণ্টার জন্য মধ্যহ্নবিরতি থাকবে। এরপর অনুষ্ঠিত হবে ঘরোয়া অধিবেশন। এতে নতুন নেতৃত্ব নির্বাচন, গঠনতন্ত্রে সংশোধন- সংযোজনসহ ভবিষ্যৎ রাজনৈতিক কর্মকৌশল ঠিক করা হবে।

এদিকে সম্মেলনে যোগদানের জন্য সারাদেশ থেকে হাজার হাজার নেতাকর্মী ও ডেলিগেট এবং কাউন্সিলররা বৃহস্পতিবার হতে ঢাকার বিভিন্ন আবাসিক হোটেল, আত্মীয়দের বাসা বাড়িতে অবস্থান নেন।

সম্মেলনে যোগ দিতে সকালেই ঢাকার আশ-পাশের জেলাগুলো থেকে জাপার নেতাকর্মীরা আসতে থাকেন। তারা বাস, ট্রাক ভাড়া করে ছুটেন ঢাকার দিকে।

এই সম্মেলনে জাতীয় পার্টি তাদের সর্বোচ্চ শক্তি জানান দিতে চায়। শুধু তাই নয় দলের চেয়ারম্যান এরশাদ, রওশন এরশাদ ও সাবেক মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলুর মধ্যে দ্বন্দ্ব নিরসন হওয়ায় জাপার এমপিরাও সম্মেলন সফল করতে মাঠে নেমেছেন।

সম্মেলনের আগমুহূর্তে পার্টির কো-চেয়ারম্যান জি এম কাদের ও মহাসচিব রহুল আমিন হাওলাদার বিভিন্ন জেলায় সফর করে প্রচার-প্রচারণা চালিয়েছেন।

জাতীয় পার্টির মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমির হাওলাদার বলেছেন, এই সম্মেলনের মধ্য দিয়ে জাতীয় পার্টি আবারও ঘুরে দাঁড়াবে এবং আগামী নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় যাওয়ার পথ তৈরি করবে। বাংলাদেশের রাজনীতিতে জাতীয় পার্টি যে একটি ফ্যাক্টর, তা আমরা প্রমাণ করবো।

তিনি বলেন, এটি হবে জাতীয় পার্টির ইতিহাসে সবচেয়ে জাকজমকপূর্ণ সম্মেলন। ইতিহাসে এই সম্মেলন স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ