[bangla_day], [english_date], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]

জঙ্গি অভিযানের টার্গেটে বিএনপি

প্রকাশঃ June 15, 2016 | সম্পাদনাঃ 15th June 2016
Feature Imageস্বাধীনতা৭১ডটকম

 

ঢাকা: বিএনপির নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তারের মূল লক্ষ্য রেখে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনের নামে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার চলমান সাঁড়াশি অভিযান চলছে বলে অভিযোগ করেছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

আজ বুধবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন রিজভী।

তিনি বলেন, ‘অভিযানে এ পর্যন্ত বিএনপি ও অন্যান্য বিরোধী দলসহ প্রায় সাড়ে বারো হাজার মানুষকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এদের মধ্যে সাধারণ ও নিরীহ মানুষের সংখ্যা অসংখ্যা। শুধু বিএনপি, এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মী ও সাধারণ সমর্থকদের আটকের সংখ্যা আড়াই হাজারের বেশি।’

বিএনপির এই যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘জঙ্গি অভিযানের নামে সরকার মূলত বিএনপিসহ অন্যান্য বিরোধী দলকেই টার্গেট করেছে। জঙ্গি ধরার নামে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করতে গিয়ে হাজার হাজার সাধারণ মানুষকে পুলিশি হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে। সংযমের মাসে ক্ষমতাসীনদের পাশবিক অসংযমী আচরণে জনপদের পর জনপদ এখন বিরাণভূমি, স্বেচ্ছাচারী দুঃশাসনের শিকলে বন্দি।’

তিনি বলেন, ‘এখন পর্যন্ত দেশজুড়ে বিভিন্ন হত্যাকাণ্ডে জড়িত প্রকৃত উগ্রবাদী জঙ্গিরা গ্রেপ্তার হয়েছে বলে কারো জানা নেই। পুলিশ দেড়শর কাছাকাছি সন্দেহভাজন জঙ্গিদের গ্রেপ্তার করেছে বলে জানালেও প্রকৃত অপরাধীদের ধরতে পেরেছে কি না তা নিশ্চিত করতে পারেনি।’

সাঁড়াশি অভিযান সারা দেশে ভয় আর ত্রাসের রাজত্ব করছে মন্তব্য করে বিএনপির এই নেতা বলেন,‘রমজান মাসের পবিত্রতাকে অগ্রাহ্য করে এই উদ্দেশ্যপ্রণোদিত অভিযান সারা দেশের মানুষকে উৎকন্ঠিত এবং উদ্বিগ্ন করে তুলেছে। অবস্থাদৃষ্টে মনে হয়, এই অভিযান প্রকৃত দুষ্কৃতকারীদের ধরতে নয়, বরং দেশের ও বিশ্বের মানুষকে বিভ্রান্ত করাটাই মূখ্য উদ্দেশ্য।’

‘সরকারের আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোর সাঁড়াশি অভিযানে কি প্রকৃত জঙ্গিদের ধরা হচ্ছে নাকি ভুতড়ে জঙ্গিদের ধরা হচ্ছে? কারণ সর্বত্র এই নিয়ে চলছে নীরব জল্পনা কল্পনা। জনমনে দীর্ঘতর প্রশ্নবোধক চিহ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে’ বলেন রিজভী।

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শুধু ঘোলা পানিতেই মাছ শিকার করতে চাচ্ছেন, আর এ জন্যই তিনি অন্যের ওপর দায় চাপিয়ে দিয়ে জঙ্গি তৎপরতার বিষয়ে মুখ ফিরিয়ে রাখেন। তবে এখন বাংলাদেশসহ পৃথিবীর সর্বত্র শেখ হাসিনার অপকৌশল সম্পর্কে ওয়াকিবহাল হয়ে গেছে। দেশব্যাপি গণগ্রেপ্তার এবং বন্দুকযুদ্ধের নামে মানুষ হত্যার কুটিল পরিকল্পনা এখন আর কারো কাছে অজানা নয়।’

ঈদের আগে পুলিশের গ্রেপ্তার বাণিজ্যকে রমরমা করার জন্যই অসহায় সাধারণ মানুষদের আটক করা হচ্ছে বলে দাবি করেন রিজভী।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. শাখাওয়াত হোসেন জীবন, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, সহ দপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু প্রমুখ  উপস্থিত ছিলেন।

এই বিভাগের আরো সংবাদ