[bangla_day], [english_date], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]

‘চরিত্রহীনা’র হাতে জাতীয় পদক!

প্রকাশঃ May 4, 2016 | সম্পাদনাঃ 4th May 2016

শিল্প ও বিনোদন ডেস্ক

ঢাকা: চলতি সময়টা মোটেও ভালো যাচ্ছিল না বলিউডের ‘কুইন’ খ্যাত অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতের। বিতর্ক আর বিদ্বেষ তার পিছু ছাড়ছেই না যেন কোনোভাবে! ক’দিন ধরে তাকে নিয়ে সোশাল সাইটে হ্যাশ ট্যাগ দিয়ে পর্যন্ত বেশ্যা, চরিত্রহীনা বলে গালাগাল করা হয়েছে। আর এগুলো নিরবে সহ্য করতে হয়েছে তাকে। আর নিজের বিরুদ্ধে এমন কুৎসা যখন চারদিকে রটছে, ঠিক সে মুহূর্তে রাষ্ট্রপতির হাত থেকে জাতীয় পদক গ্রহণ করলেন তুখোর এই অভিনেত্রী!

হ্যাঁ। চারদিকে যখন তাকে নিয়ে চলছে তুমুল বিতর্ক, আর তখনই গতকাল রাতে রাষ্ট্রপতি ভবনে গিয়ে জাতীয় পদক গ্রহণ করলেন ২৯ বছর বয়সী অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। গত বছরে ‘তনু ওয়েডস মুন রিটার্ন’-এ অনবদ্য অভিনয়ের জন্য সেরা অভিনেত্রী হিসেবে জাতীয় পুরস্কার অর্জন করেন তিনি।

গতকাল রাষ্ট্রপতি প্রনব মূখার্জির হাত থেকে জাতীয় পুরস্কার গ্রহণ করার প্রাক্কালে তার সঙ্গে ছিলেন তার বাবা, মা ও ভাই-বোন। মেয়ের এমন সাফল্যে রীতিমত হাওয়ায় ভাসছেন কঙ্গনার বাবা অমরদ্বীপ রানাউত। তিনি এই মুহূর্তটিকে গর্বের আখ্যা দিয়ে বলেন, আমি খুবই আনন্দিত। বাবা হিসেবে এই মুহূর্তটি সত্যিই আমার জন্য অত্যন্ত গর্বের!

অন্যদিকে এটাই কঙ্গনার প্রথমবার জাতীয় পুরস্কার অর্জন নয়। বরং এর আগে আরো দুইবার জাতীয় পুরস্কার অর্জন করেন কঙ্গনা।

উল্লেখ্য, ক’মাস ধরেই বলিউড সুপারস্টার ঋত্বিক-কঙ্গনার প্রেম, ব্রেকআপ ও বাগদান নিয়ে মিডিয়ায় চলছে জোর সমালোচনা। একের বিরুদ্ধে অন্যে থানা পুলিশ পর্যন্ত করেছেন। সবকিছু যখন নিয়ন্ত্রণে চলে আসছিল ঠিক তখনই সম্প্রতি অধ্যয়ন সুমন নামের কঙ্গনার আরেক প্রাক্তন প্রেমিক কঙ্গনার বিরুদ্ধে মুখ খুলেন। এমন ত্রিমুখি অবস্থায় সকলে কঙ্গনার চরিত্র নিয়ে প্রশ্ন তুলেন। সোশাল মিডিয়ায় পর্যন্ত ফেসবুক সেলিব্রেটিরা কঙ্গনাকে বেশ্যা এবং চরিত্রহীনা বলে হ্যাশট্যাগ দেন। যদিও নিজের বিরুদ্ধে এমন অপপ্রচার নিয়ে নুন্যতম মাথাব্যথা নেই কঙ্গনার। অন্তত এমন কথায় সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে জানালেন কঙ্গনা নিজেই!

এই বিভাগের আরো সংবাদ