[bangla_day], [english_date], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]

আঙুলের ছাপে সিম নিবন্ধনে ঝুঁকি নেই

প্রকাশঃ April 4, 2016 | সম্পাদনাঃ 4th April 2016

বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে মোবাইল ফোনের সিম নিবন্ধনে আঙুলের ছাপ দেয়ার কারণে গ্রাহকরা  কোনো ঝুঁকিতে পড়বে না বলে মন্ত্রিসভাকে আশ্বস্ত করেছেন ডাক তার ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।

আজ সোমবার সচিবালয়ে  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে  এ কথা জানান প্রতিমন্ত্রী।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ-সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের এ কথা জানান। তিনি বলেন, সিম পুনর্নিবন্ধন বিষয়ে মন্ত্রিসভার আলোচনায় গ্রাহকদের আতঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই বলে উল্লেখ করা হয়।

বৈঠক সূত্র জানায়, সিম পুনর্নিবন্ধন নিয়ে যেসব আশঙ্কা ও সমালোচনা হচ্ছে, তা মন্ত্রিসভার বৈঠকে তোলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। তখন ডাক তার ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেন, মোবাইল অপারেটরদের কাছে কোনো তথ্য জমা থাকছে না। মোবাইল অপারেটরদের বায়োমেট্রিক সিম নিবন্ধন যন্ত্রে আঙুলের ছাপ সংরক্ষণেরও কোনো ব্যবস্থা নেই। এটা কোনোভাবে অন্য কোথাও ব্যবহার করা যায় না।

তারানা হালিম বলেন, আইন অনুসারে কোনো কোম্পানি এসব তথ্য বাইরে ব্যবহার করতে বা কাউকে দিতে পারেন না।

গত বছরের ১৬ ডিসেম্বর থেকে সারা দেশে ছয়টি মোবাইল অপারেটর গ্রাহকদের আঙুলের ছাপ নিয়ে সিম/রিম নিবন্ধন ও তথ্য যাচাই শুরু করে। এরপর থেকে নানা মহল থেকে সমালোচনা করে বলা হচ্ছে, বায়োমেট্রিক রেজিস্ট্রেশনের সময় নেওয়া গ্রাহকদের আঙুলের ছাপ মোবাইল অপারেটরদের কাছে সংরক্ষিত থাকবে।  নাগরিকের একান্ত ব্যক্তিগত তথ্য বিদেশে চলে যাবে। অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে নিরীহ মানুষকে জড়ানোর আশঙ্কা  থাকবে।

৩০ এপ্রিলের মধ্যে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে রি-রেজিস্ট্রেশন না করলে সিমকার্ড বন্ধ করে দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। তবে পরবর্তীতে রি-রেজিস্ট্রেশন করলে তা খুলে দেয়া হবে বলে জানান তিনি।

এই বিভাগের আরো সংবাদ