[bangla_day], [english_date], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]

‘অসাংবিধানিকভাবে ক্ষমতা দখলের ষড়যন্ত্র চলছে

প্রকাশঃ April 29, 2016 | সম্পাদনাঃ 29th April 2016

Nasim20160429152647

ঢাকা: গুপ্তহত্যার মাধ্যমে দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করে অসাংবিধানিকভাবে ক্ষমতা দখলের ষড়যন্ত্র চলছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

শুক্রবার (২৯ এপ্রিল) দুপুরে ১৪ দলের সভা শেষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন নাসিম।

আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় আগামী ৮ মে ঢাকায় ও ১৪ মে রাজশাহীতে ১৪ দলের জনসভা করার সিদ্ধান্ত হয়।

১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম বলেন, দেশে গুপ্তহত্যার মাধ্যমে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করে অসাংবিধানিকভাবে ক্ষমতা দখলের ষড়যন্ত্র হচ্ছে। ৫ জানুয়ারি নির্বাচনে বিএনপি-জামায়াত জোট প্রতিযোগিতা করতে ব্যর্থ হয়ে আন্দোলনের নামে মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করেছে। দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করার চেষ্টা করেছিলো। তখন ১৪ দল সব ষড়যন্ত্র মেকাবেলা করেছে।

তিনি আরো বলেন, দেশের পরিস্থিতি যখন স্থিতিশীল হচ্ছে, দেশ যখন জাতীয়-আন্তর্জাতিকভাবে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে, তখন একটি মহল আবার চক্রান্ত শুরু করেছে। যখন স্থানীয় সরকার নির্বাচন হচ্ছে তখন একটি মহল পরিকল্পিতভাবে এ চক্রান্ত শুরু করেছে। গুপ্তহত্যার ঘটনা ঘটাচ্ছে।

এসব ঘটনার উদ্দেশ্য একটাই, সরকারকে বিব্রত ও বিপর্যস্ত করা। সরকারকে জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে চাপে ফেলা। এসব হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ১৪ দল উদ্বিগ্ন। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে আরও কঠোর হতে হবে। অতীতে যেমন ১৪ দল সব চক্রান্ত মোকাবেলা করেছে। আজও বিএনপি-জামায়াত জোটের যেকোনো চক্রান্ত জনগণকে সঙ্গে নিয়েই মোকাবেলা করবে, বলেন নাসিম।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর এ সদস্য বলেন, যারা নৈরাজ্য করতে ব্যর্থ হয়েছে, তারাই গুপ্ত হত্যার মাধ্যমে একাত্তরের ঘাতকদের বিচার বন্ধ করতে চায়। জাতীয়-আর্ন্তজাতিকভাবে চাপ সৃষ্টি করেও এ বিচার বন্ধ করা যায়নি। বিচার হচ্ছে, হবে।

এদিকে ১৪ দলের দপ্তর বিষয়ক সমন্বয়ক ও আওয়ামী লীগের উপ দপ্তর সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস জানান, রাজধানীর কলাবাগানে হত্যার ঘটনায় আগামী ৮ মে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জনসভা ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক হত্যার ঘটনায় রাজশাহী মহানগরে ১৪ মে প্রতিবাদ সমাবেশ করার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবীর নানক, জাসদ একাংশের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার, জাসদ আরেকাংশের সভাপতি শরীফ নূরুল আম্বিয়া, সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক প্রধান, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, বাসদ আহ্বায়ক রেজাউর রশিদ খান প্রমুখ।

এই বিভাগের আরো সংবাদ